বাংলাদেশ, শনিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং, ২রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধ’: অস্ত্র লুট ও হত্যা মামলার আসামি নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নুরুল আলম (৩৫) নামে এক রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত হয়েছে। শুক্রবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ভোর পাঁচটার দিকে টেকনাফের দমদমিয়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এসময় দুটি বিদেশি পিস্তল, দুটি ম্যাগাজিন ও ১৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নুরুল টেকনাফের নয়াপাড়া আনসার ক্যাম্পের অস্ত্র লুট ও আনসার কমান্ডার আলী হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামি।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘রাতে র‌্যাবের একটি টহল দল টেকনাফ দমদমিয়া এলাকায় কিছু লোককে চ্যালেঞ্জ করলে তারা অতর্কিতভাবে র‌্যাবের ওপর গুলিবর্ষণ করে। এসময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। ২৫ থেকে ৩০ মিনিট ধরে চলে দুই পক্ষের গোলাগুলি। এসময় অন্যরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করা হয়। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। পরে র‌্যাব রোহিঙ্গা ডাকাত নুরুল আলমের লাশ শনাক্ত করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘র‌্যাব জানতে পারে, টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থিত আনসার ক্যাম্পের অস্ত্র লুট ও আনসার কমান্ডার আলী হোসেনের হত্যা মামলার প্রধান আসামি এই নুরুল। সে দীর্ঘদিন পলাতক ছিল। নুরুলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টেকনাফ থানা পুলিশকে হস্তান্তর করা হয়েছে।’
উল্লেখ্য, গত ২০১৫ সালের ১২ মে রাতে রোহিঙ্গা সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের দায়িত্বে নিয়োজিত আনসার ক্যাম্পে হামলা চালিয়ে আনসার কমান্ডার আলী হোসেনকে হত্যার পর ৬০০ রাউন্ড গুলি ও ১৩টি অস্ত্র লুঠ করে নিয়ে যায়। পরে মিয়ানমার সীমান্তের ঘুংধুম এলাকার গহীন অরণ্যে অভিযান চালিয়ে লুট হওয়া পাঁচটি সহ ১৩টি অস্ত্র ও ৯৫ রাউন্ড গুলি নিয়ে তিন রোহিঙ্গাকে র‌্যাব গ্রেফতার করে।

আরো খবর

Leave a Reply