বাংলাদেশ, রবিবার, ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং, ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

তিনি মানুষকে ভালবাসতেন মানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন

সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম এর স্মরণ সভায় ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি

সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম মানুষকে ভালবাসতেন মানুষের জন্য রাজনীতি করেছেন। তিনি নিজের জন্য রাজনীতি করেননি। দলীয় রাজনীতি করলেও প্রতিহিংসা রাজনীতি করেননি। অসম্প্রদায়িক, উন্নয়ন, শিক্ষা সম্প্রসারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছিলেন। শিক্ষা বঞ্চিত অনগ্রসর হাটহাজারী এলাকায় দরিদ্র শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। কে.সি. শহীদ জিয়াউর রহমান ডিগ্রি কলেজ তাঁর হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান। এই রকম অনেক প্রতিষ্ঠান তাঁর হাত দিয়ে প্রত্যেক্ষ-পরোক্ষভাবে গড়ে উঠেছে। তাঁর সাথে আমার পরিচয় হয় ১৯৭৯ সনে। সেই সময় আমরা একই সাথে একই দলে রাজনীতি করতাম। পরবর্তীতে আমাদের রাজনৈতিক চিন্তা ও দল ভিন্ন হলেও তিনি ছিলেন একজন রাজনৈতিক উদার ব্যক্তিত্ব। তাঁর স্মৃতিকে ধরে রাখতে গেলে, তিনি যে কাজ গুলো করে গেছেন এইগুলোকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে হবে। গত ১৪ জুলাই সকাল ১২ ঘটিকায় হাটহাজারীস্থ কে.সি.শহীদ জিয়াউর রহমান ডিগ্রী কলেজের উদ্যোগে আয়োজিত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক হুইপ ও কে.সি.শহীদ জিয়াউর রহমান ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম এর স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি একথা বলেন। স্মরণ সভায় কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাকির হোসেন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আল-ফোরকান, হাটহাজারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ফরিদ আহমদ ও বর্তমান অধ্যক্ষ মির কফিল উদ্দিন, নাজিরহাট কলেজের অধ্যক্ষ এস.এম.নুরুল হুদা, ফতেয়াবাদ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইদ্রিচ, ডাঃ কিউ.এম. অহিদুল আলম, হাটহাজারী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য গোবিন্দ প্রসাদ মহাজন, চিকনদন্ডি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান জামান বাচ্চু, কলেজের গভর্নিং বড়ির সদস্য ও ব্যাংকার এ.টি.এম.কামরুদ্দিন চৌধুরী, হাটহাজারী প্রেস ক্লাবের সভাপতি কেশব কুমার বড়–য়া। প্রফেসর সৈয়দ শাহজাহান ও কানিজ তাহসিন রৌশনের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, ডাঃ কাজী মোহাম্মদ ইদ্রিচ, প্রফেসর তাহেরুল আনোয়ার, স্বাগত বক্তব্য রাখেন, গভর্নিং বডির সদস্য এ.টি.এম. কামরুদ্দিন চৌধুরী এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন মরহুমের ছোট ভাই আলহাজ্ব সৈয়দ নেছার উদ্দিন বুলু, শিক্ষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ফারজানা আবেদীন চুমকি, কলেজ শিক্ষার্থীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন আতিকুর রহমান। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলোয়াত করেন কলেজ লাইব্রেরীয়ান মৌলানা মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহেদ।

আরো খবর

Leave a Reply