জানুয়ারি ২৫, ২০২২ ১:৩৫ পূর্বাহ্ণ

মানিক চৌধুরী রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মান স্বাধীনতা পদকে ভুষিত

মানিক চৌধুরীর ৩৮তম মৃত্যু বার্ষিকীতে বক্তারা
স্বাধীনতা পদক প্রাপ্তিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে গৌরবোজ্জ্বল কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য স্বীকৃতি হিসেবে ঐতিহাসিক আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার অভিযুক্ত, ৬ দফা আন্দোলনের অন্যতম রূপকর, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট সহচর প্রয়াত ভূপতি ভূষণ চৌধুরী প্রকাশ মানিক চৌধুরীকে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মান স্বাধীনতা পদক ২০১৮ দেয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তার ৩৮তম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণ সভায় বক্তারা।
স্বাধীনতা সংগ্রামী মানিক চৌধুরী স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে  ৩০ জুন, বিকাল ৪ টায় প্রয়াতের জন্মস্থান চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলার হাবিলাসদ্বীপ গ্রামে আয়োজিত স্মৃতি সংসদের সভাপতি বিপ্লব দাশগুপ্তের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব কুমার দত্ত’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন, প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কাঞ্চন মজুমদার, হাবিলাসদ্বীপ ঈশ্বরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি স্বপন চৌধুরী দুবাই, সংগঠনের সহ-সভাপতি অজয় বিশ্বাস, যুগ্ম সম্পাদক প্রদর্শক অশোক চৌধুরী, হাবিলাসদ্বীপ ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি অনিল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক দীপক সরকার, হাবিলাসদ্বীপ ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডা. হারাধন দত্ত, প্রদীপ চৌধুরী, অভিজিত মজুমদার শানু, তাপস দাশ, স্বপন ঘোষ, রাজিব মিত্র, টিটন সেন, সৈকত দেব প্রমুখ।
স্মরণ সভায় বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম দাতা, স্বাধীনতা সংগ্রামের বিস্মৃত নায়ক মানিক চৌধুরী ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামের ক্ষেত্র প্রস্তুতকারী ব্যক্তিত্ব। তাঁর আজীবন সংগ্রাম ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগকে প্রতিষ্ঠিত করার। তাঁর আজীবন ব্রত ছিল অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠন ও বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সোনার বাংলাদেশ গড়ার। তিনি দরাজ হস্তে দলের জন্য দান করতে যত অকৃপন ছিলেন, নিজেকে জাহির করতে কৃপন ছিলেন মানিক চৌধুরী। ফলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুবই কাছের ও আস্থাভাজন মানুষ হওয়া সত্বেও তাঁর ওপর প্রচারের আলো পড়েনি। পদ নয়, ক্ষমতা নয়, আদর্শ ছিল তার আরধ্য। বঙ্গবন্ধুর সাথে এই চিন্তার ঐক্যই মানিক চৌধুরীকে তাঁর অনুরাগী ও অনুগামী করে তোলে। সভার পুর্বে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তাঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে তাঁকে শ্রদ্ধা জানান।

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply