একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সংসদীয় আসন কুড়িগ্রাম-১ নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে

  প্রিন্ট
(Last Updated On: জুন ২০, ২০১৭)

সাইফুর সাইফুর রহমান

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সংসদীয় আসন কুড়িগ্রাম-১ নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে। এ মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি দলীয় নেতাকর্মীদের চাঙা করতে তৎপর হয়ে উঠেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা।

সম্ভাব্য প্রার্থীরা এলাকায় নিয়মিত ইফতার পার্টি। আসছে ঈদকে ঘিরে তারা ভোটারদের খোঁজখবর নিচ্ছেন, কুশল বিনিময় করছেন। পোস্টার-ফেস্টুনের মাধ্যমে ঈদ শুভেচ্ছা জানানো হচ্ছে।

এই আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রার্থীদের পাশাপাশি আলোচনায় আছেন জাতীয় পার্টি, জাতীয় পার্টি (জেপি) সহ আরোও দুই-তিনটি রাজনৈতির দল।

তবে কেউ  দলীয় মনোনয়ন না পেলোও স্বতন্ত্র প্রাথী হিসাবে মার্কা নিয়ে নির্বাচনে লড়বে বলে জানাগেছে।

জাতীয় পার্টি প্রার্থী

জাতীয় পার্টি থেকে কুড়িগ্রাম-১ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য এ.কে.এম. মোস্তাফিজ্জুর রহমান (মোস্তাক) পুনরায় মনোনয়ন প্রাপ্তির প্রত্যাশা করছেন। তার পক্ষে নেতাকর্মীরা নিয়মিতদলীয় কর্মসূচি ছাড়াও নেতা-কর্মীদের সঙ্গে তার সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন।

আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী আটজন

এই আসনে এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগেরে আটজন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। এই প্রার্থীদের বেশির ভাগই বলেছেন কেন্দ্রীয় সমর্থন পেলে নির্বাচন করবেন, না পেলে নয়। আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী জেলা কৃষক লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান বীরবল, নাগেরশ্বরী  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজ্জাম্মেল হক প্রধানী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গোলাম মোস্তফা, নাগেশ্বরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আসলাম হোসেন সওদাগর। তিনি গত বার আওয়ামী লীগ থেকে সমর্থনও পেয়ে ছিলেন ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ক উপ-সম্পাদক ও বর্তমানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, ডাঃ মাহফুজার রহমান উজ্জ্বল।

মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান বীরবল  জানান, আমি ৬৭-৬৮ এর পড় থেকে রাজনীতি করে আসছি। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত তার পক্ষে গেলে তিনি নির্বাচন করবেন। মনোনয়ন পেলে তিনি জয়ী হবেন এমন আশাও করছেন তিনি।

ডাঃ উজ্জ্বল  জানান, নাগেশ্বরী-ভুরুঙ্গামারীর মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের লক্ষে নিরলশ ভাবে কাজ করে যাবো।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে আপনাদের কোন বিকল্প পূর্বেও ছিল না, বর্তমানেও নেই । বর্তমান সরকারের নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সর্বদাই নেতাকর্মীদের মূল্যয়ন করে থাকে। তৃণমুল পর্যায় থেকে দলীয় সকল কর্মকান্ড সাংগঠনিক পর্যায়ে শক্তিশালী করতে হবে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল নেতাকর্মীদের দলমতের উদ্ধে থেকে নিরলশভাবে কাজ করার জন্য আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

এদিকে ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় রয়েছেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আক্তারুজ্জমান মন্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুনবী চৌধুরী খোকন।

নুরুনবী চৌধুরী খোকন  জানান, সাধারণ মানুষ আমাকে যেকোনো সময় ডাকলে কাছে পায়। আমাকে তারা ভালোবাসে। দলীয় সমর্থন পেলে তিনি জয়ী হবেন বলে আশা করেন।

বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী

বিএনপির দলীয় ইউনিটি দুর্বল হলেও ভোটের মাঠে পাঁচ প্রার্থীর আনাগোনা দেখা যাচ্ছে। বিগত বছরগুলোতে তৃণমূল কর্মীদের সঙ্গে দূরত্ব থাকলেও এখন সেই দূরত্ব কমানোর চেষ্টা করছেন। নিয়মিত কর্মীদের খোঁজখবর রাখছেন। দলের বিভিন্ন প্রোগ্রামে উপস্থিত হচ্ছেন। রমজানে ইফতার মাহফিলকে প্রচারের মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছেন।

এই আসনে বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকায় আছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুর রহমান রানা।

মো. সাইফুর রহমান রানা  বলেন, ‘ধানের শীষের টিকিট তিনিই পাবেন। সেই অনুযায়ী মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। তার মতে সুষ্ঠু ভোট হলে জনগণ তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।’

জাতীয় পার্টি (জেপি) সম্ভাব্য প্রার্থী

জাতীয় পার্টি (জেপি)র আইন বিষয়ক সম্পাদক, কেন্দীয় কমিটি, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রশীদ আহমেদ।

রশীদ আহমেদ  বলেন, নির্বাচনের জন্য আমি মাঠে অনেক আগে থেকেই কাজ করে যাচ্ছি। রাত-দিন বিবেচনা না করে যেকোনো মানুষের সমস্যায় তাদের পাশে দাঁড়াই। সাধারণ মানুষ আমাকে যেকোনো সময় ডাকলে কাছে পায়। আমাকে তারা ভালোবাসে। জনগণের সমর্থন পেলে তিনি জয়ী হবেন বলে আশা করেন।

স্বতন্ত্র প্রাথী

স্বতন্ত্র প্রাথী হিসাবে নির্বাচন করতে পারে ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই মাষ্টার।

আব্দুল হাই  বলেন, নির্বাচনের জন্য আমি মাঠে অনেক আগে থেকেই কাজ করে যাচ্ছি। তৃণমূলের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেলামেশা এবং তাদের প্রয়োজনে পাশে দাঁড়ান।

নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের কাছে দোয়া ও সমর্থন পাবার জন্য পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে পোস্টার সেটেছেন। নির্বাচনের সম্ভাব্য সময় যতই এগিযে আসছে ততই চলছে নির্বাচনী নানা কর্মকান্ড। প্রার্থীরা ভিন্ন ভিন্ন কৌশলের মাধ্যমে তাদের নির্বাচনী তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password