গরীব উল্লাহ শাহ’র মাজার পাহাড়ের পাদদেশ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বসতি উচ্ছেদের দাবি

  প্রিন্ট

নগরীর খুলশী থানাধীন হযরত গরীব উল্লাহ শাহ মাজার পাহাড়ের পাদদেশে গড়ে উঠা অবৈধ ও ঝুঁকিপূর্ণ বসতি স্থাপনের দাবি জানিয়েছে কুসুমবাগ আবাসিক সোসাইটি, বায়তুল আমান ও শাহ গরীব উল্লাহ আবাসিক সোসাইটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ। বুধবার এ বিষয়ে একটি লিখিত আবেদন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসককে দেয়া হয়। আবেদনে বলা হয়, ‘গত কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণে তিন পার্বত্য জেলা সহ চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে ব্যাপক প্রাণহানি ঘটেছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় এ যে কুসুমবাগ আবাসিক সোসাইটি, বায়তুল আমান ও শাহ গরীব উল্লাহ আবাসিক সোসাইটি গুলো পাহাড় ঘেরা। গরীব উল্লাহ শাহ মাজারের পেছনে পাহাড়ের পাদদেশে দীর্ঘদিন ধরে কিছু লোক অবৈধভাবে ঘরবাড়ী তৈরী করে বসবাস করছে। যেসব ঘরগুলো খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। যেকোন সময় পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটলে ব্যাপক প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। এই বাড়িগুলো প্রভাবশালী ব্যক্তিরা তৈরী করে ভাড়া দিয়েছে। এখানে পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাসের লাইনও রয়েছে। চট্টগ্রাম পাহাড় ব্যবস্থাপনা কমিটি নগরীর বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ের তালিকা তৈরী করলেও এই পাহাড়টির কথা জানে না সংশ্লিষ্ট কেউ। আমরা বারবার প্রশাসনের নিকট দরখাস্ত বা লেখালেখীর মাধ্যমে দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করলেও অজ্ঞাত কারণে প্রশাসন এ নিয়ে নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করে। বর্তমানে পাহাড় ধস চট্টগ্রামের মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে। ফলে প্রবল বর্ষণের ফলে যেকোন সময় এখানে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। যাতে ব্যাপক প্রাণহাণি ঘটবে। তাই অবিলম্বে গরীব উল্লাহ শাহ মাজারের পেছনে গড়ে উঠা অবৈধ বসতি উচ্ছেদ করার দাবি জানান এ তিন আবাসিক এলাকার বাসিন্দারা। তা না হলে এখানে কোন দুর্ঘটনা ঘটলে তার জন্য প্রশাসন দায়ী হবে বলে আবেদনে জানানো হয়।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password