চন্দনাইশে নাজিম উদ্দিনের ইসালে সওয়াব মাহফিলে বক্তারা আল্লাহ পাক ঈমানদার প্রাপ্ত লোকদের মর্যাদা উচ্চ করে দেন

  প্রিন্ট
(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৭)

গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ চন্দনাইশ উপজেলা শাখার সাবেক উপদেষ্ঠা, নাজিম এন্ড কোং প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মরহুম আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিনের ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী স্মরণে পবিত্র খতমে বোখারি ও জশ্নে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (দ.) মাহফিল ১১ ফেব্রুয়ারি শনিবার বাদে মাগরিব হতে মরহুমের নিজ গ্রামস্থ চন্দনাইশ পশ্চিম কেশুয়া পূর্ব পাড়া জামে মসজিদে চট্টগ্রাম নেছারিয়া আলিয়া মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মুহাম্মদ শাখাওয়াত হোসাইন (ম.জি.আ)’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান মেহমান ছিলেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল জব্বার চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব আবু আহমদ জুনু, পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহবুবুল আলম খোকা। প্রধান বক্তা ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাত সম্পন্ন আলেমেদ্বীন অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মাওলানা হাসান রেজা আলকাদেরী। বিশেষ আলোচক ছিলেন পটিয়া সাঈদার গাউছিয়া তৈয়্যবিয়া মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ আল্লামা শাহ্ খলিলুর রহমান নিজামি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ড. এ.এস.এম বোরহান উদ্দিন, মাওলানা সেলিম উদ্দিন আনোয়ারী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুহাম্মদ মঈন উদ্দিন আহমদ রুপন। উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব মাওলানা কাজী আবুল কালাম আজাদ, মাওলানা শহিদুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল হক হক্কানি, মাজহার হেলাল, মাওলানা মামুনুর রশিদ, মাওলানা জামশেদুল আলম, মাওলানা মুহাম্মদ ইসহাক, মাওলানা হাসান আলী নুরী, মাওলানা আবুল হাসেম, মাওলানা মুহাম্মদ ইদ্রিস, মাওলানা মোস্তফিজুর রহমান, ইমরানুল হাসান আসিফ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, সমগ্র বিশ্ব আজ ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। বিশেষত: সর্বশ্রেষ্ঠ ধর্ম ইসলাম। ধর্মহীনদের বিরামহীন তৎপরতা গলাধঃকরণ করছে ইসলামের উজ্জ্বল ঐতিহ্য-সংস্কৃতি। বসে নেই মুসলিম ছদ্মবেশী ধর্ম-শত্রুরাও। প্রতিনিয়তই ইসলামের নাম ভাঙ্গিয়ে অনৈসলামিক কার্যকলাপ পরিচালনা করে তারা অপপ্রচারের প্লাটফর্ম খুলে দিচ্ছে ইসলামের প্রকাশ্য বিদ্বেষীদের। সব মিলয়ে ঘোর অমানিশার হাতছানি। এই সংক্ষট হতে মুক্তির জন্য নবী (দ.) ও অলিয়েকেরামের আদর্শ চর্চা অপরিহার্য। যারা এই আদর্শ ধারণ করেছে তাদের পরকালে মুক্তির পথ অবদারিত। আল্লাহ পাক ঈমানদার প্রাপ্ত লোকদের মর্যাদা উচ্চ করে দিয়েছেন।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password