বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং, ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

চসিক মহানগরকে হারিয়ে চট্টগ্রাম জেলা দল চ্যাম্পিয়ন

 

হোসেন বাবলা

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের উদ্যোগে বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহায়তা ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্য্যলয়ের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু গোলকাপ ফুটবল(অনুর্ধ-১৭)এর ফাইনালে বুধবার বন্দর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায়  লড়াকু চসিক মহানগর দল  কে ট্রাইবেকারে ১-৩ গোলে শক্তিশালী চট্টগ্রাম জেলা দল অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে  জাতীয় পর্যায়ে খেলার গৌরব অর্জন করে।

বিকেল সাড়ে ৩টায় অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচে দুই স্বাগতিকের কেই নির্ধারিত ৭০মিনেটের খেলায় গোল করতে না পারলে আলো স্বল্পতার জন্য কমিটির সিদ্ধান্ত অনুয়ারী সরাসরি ট্রাইবেকার শর্টে অভিজ্ঞ বড়ভাই খ্যাত জেলা দলে কাছে চসিক মহানগর দল পরাজয় বরণ করেন। তবে মহানগরদল থানা ওজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে আসায় টুর্নামেন্টের আয়োজক বিভাগীয় কমিশানর আব্দুল মান্নান কোচ সুবল ওপ্রিন্স কে অভিনন্দন জানান।

ফাইনাল খেলা শুরুর পূর্বে উভয় দলের খেলোয়াড়দের সাথে পরিচয় এবং বলে কিক দিয়ে ফাইনাল খেলার উদ্বোধন করেন বিভাগীয় কমিশানর ।

টুর্নামেন্টের সেরা গোলদাতা(৭টি) ও সু-শৃংখল ট্রফিলাভ করেন কক্সবাজার জেলা দলের ইকমত হাকিম আদিল,ফাইনাল ওটুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন চসিক মহানগরের আশিক।

৩রা অক্টোবর বুধবার বিকেলে বিভাগীয় পর্যায়ের ফাইনাল খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী সভায় প্রধান অতিথি থেকে  উভয় দলের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশানর আব্দুল মান্নান। টুর্নামেন্টের আহবায়ক (অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশানর) নুরুল আলম নিজামীর সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন-জেলা প্রশাসক মোঃইলিয়াছ হোসেন,বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ওপ্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাস,সাঃসম্পাদক সিরাজ উদ্দিন মোঃ আলমগীর,যুগ্ন সম্পাদক-নজরুল ইসলাম লেদু,চসিক ৩৬নংওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, সিজেকেএস যুগ্ন সম্পাদক-আমিনুল ইসলাম আমিন,ফুটবল সম্পাদক-মোঃইউসুপ,সিডিএফ সহ-সভাপতি এস.এম শহীদুল ইসলাম,বন্দর স্পোর্টস একাডেমীর কর্মকর্তা গোলাম মুর্তজা,ডাঃমোঃসারোয়ার ,পরিচালক সুলতান শাহীন টুর্নামেন্টের সদস্য সচিব ও জেলা ক্রীড়া অফিসার মনোরনজন দে সহ বিভিন্ন জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট,ক্রীড়া সংগঠক,সিজেকেএস ,কাউন্সিলর ও সদস্য বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় প্রধান অতিথি বলেন, আত্ম বিশ্বাসী হয়ে এবং সৎ সাহস নিয়ে লড়াই করে হারলে দুঃখ বোধ থাকে না।আর তৃণমূল পর্যায়ের এই ফুটবল প্রতিযোগিতা আগামীর ক্রীড়া বিনোদন কে জাগ্রত করবেই।যুব খেলোযাড়দের সেই মনোবল বৃদ্ধিতে নিয়ে বর্তমান সরকার বঙ্গবন্ধুর নাম করণে জাতি কে আবারো ৭১’এর’মুক্তিযোদ্ধের মতো জাগ্রত করতে এ আয়োজন। ফাইনাল খেলা টি পরিচালনা করেন রেফারী নাজমুর হাসান,সহকারী ছিলেন-হেলাল,ধীমান।ম্যাচ রেফারী ছিলেন-নুরুল আবছার।

আরো খবর

Leave a Reply