যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: আগস্ট ২৩, ২০১৮)

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে যৌতুক না পেয়ে শাপলা বেগম (২২) নামের এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিসাধীন অবস্থায় বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়।
শাপলা বেগম (২২) উপজেলার সল্লা ইউনিয়নের নরদহী চরপাড়া গ্রামের রাব্বি ইসলামের স্ত্রী এবং একই এলাকার বেল্লাল হোসেনের মেয়ে।
স্থানীয়রা জানায়, ঈদের আগের দিন মঙ্গলবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ওই বাড়িতে ছুটে যান। তারা ঘরের ভেতরে গিয়ে দেখেন শাপলা বেগমের শরীর অর্ধেক অংশ আগুনে পুড়ে গেছে এবং তিনি চিৎকার করছেন। এক পর্যায়ে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কমর্রত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ভর্তির পর বুধবার রাতে চিকিসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
শাপলার মা মর্জিনা বেগম বলেন, আমার মেয়েকে যৌতুকের জন্য প্রতিনিয়ত নির্যাতন করা হত। আমার মেয়ে আমাকে এবং আমার ছেলেকে ফোনে প্রায়ই এ কথা বলত। ঘটনার আগের দিন এনিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। যৌতুক না পেয়েই আমার মেয়েকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। আমি হত্যাকারীদের বিচার চাই।
কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password