জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৮ শুরু

  প্রিন্ট
(Last Updated On: জুলাই ২২, ২০১৮)

সুস্থ-সবল ও মেধাসম্পন্ন জাতি গঠনে মৎস্য খাতের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জাতীয় অর্থনীতিতে এ সম্ভাবনাময় সেক্টরের ভূমিকা ক্রমাগতভাবে বেড়েই চলেছে।

‘স্বয়ংসম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য ও স্লোগানে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৮ শুরু হয়েছে আজ। সপ্তাহটি সরকারী-বেসরকারীভাবে দেশব্যাপী উদযাপিত হচ্ছে।

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৮ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন। প্রদত্ত বাণীতে রাষ্ট্রপতি দেশের মৎস্য খাতের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে নিষ্ঠা, দক্ষতা ও আন্তরিকতা সঙ্গে কাজ করতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, নদ-নদী,হাওর-বাওড় সমৃদ্ধ বাংলাদেশের আপামর জনসাধারণের পুষ্টি চাহিদা পূরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র্য বিমোচনের পাশাপাশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে মৎস্য সম্পদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। বর্তমান সরকারের নিরন্তর প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ আজ মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে চতুর্থ।

রাষ্ট্রপতি উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে দেশীয় মাছের প্রজাতি রক্ষায় বিভিন্ন নদ-নদী ও জলাশয় গুলোতে প্রজনন মৌসুমে মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ করা, মাছের অভয়ারণ্য ঘোষণাসহ সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ গুলোর যথাযথ বাস্তবায়নে সকলকে সচেষ্ট থাকার আহ্বান জানান।

রাষ্ট্রপতি বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার সঙ্গে একাত্ম হয়ে এবারের জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের প্রতিপাদ্য ‘স্বয়ংসম্পূর্ণ মাছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ যথার্থ ও তাৎপর্যপূর্ণ হয়েছে।’

প্রদত্ত বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সমন্বিত ব্যবস্থাপনা ও সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচিসহ বর্তমান সরকারের গণমুখী কর্মকান্ডের ফলে ইলিশ উৎপাদনে অভাবনীয় সাফল্য অর্জিত হয়েছে। জাতীয় মাছ ইলিশকে আন্তর্জাতিকভাবে ব্রান্ডিং-এর লক্ষ্যে ভৌগলিক নির্দেশক পণ্য হিসেবে নিবন্ধন করা হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সমুদ্র বিজয়ের মাধ্যমে সৃষ্ট ব্লু-ইকোনমির বিশাল সম্ভাবনা কাজে লাগানোর লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। গবেষণা ও জরিপ জাহাজ ক্রয় করে সামদ্রিক মৎস্য সম্পদের জরিপ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘গভীর সমুদ্রে মৎস্য আহরণের লক্ষ্যে প্রথমবারের মতো লং লাইনার ও পার্সসেইনারের মাধ্যমে মৎস্য আহরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-১৮’ ১৮-২৪ জুলাই পালনের কথা থাকলেও অনিবার্যকারণে সময় পরিবর্তন করা হয়। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অনিবার্যকারণে ১৮-২৪ জুলাই এর পরিবর্তে ২২-২৮ জুলাই ‘জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৮’ পালিত হবে।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password