শেষকৃত্যে যাওয়ার পথেও সন্ত্রাসীদের গুলি নিহত ৫

  প্রিন্ট
(সর্বশেষ আপডেট: মে ৪, ২০১৮)

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমার শেষকৃত্যে যাওয়ার পথে সন্ত্রাসীদের হামলায় ৫ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন।

আজ শুক্রবার দুপুরে উপজেলার সীমান্তবর্তী বেতছড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ওই ব্যক্তিরা খাগড়াছড়ি থেকে আজ শুক্রবার রাঙামাটির নানিয়ারচর আসছিলেন। শেষকৃত্য স্থলে আসার আগের খালিয়াজুড়ি নামক স্থানে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্য আছেন তপন জ্যোতি চাকমা। তিনি ইউপিডিএফ-গণতান্ত্রিক দলের আহ্বায়ক। অন্য চার জন হলেন, সুজন চাকমা, প্রণব চাকমা, সেতু চাকমা ও তাঁদের বহনকারী মাইক্রোবাসের চালক মো. সজীব।

এই হত্যাকাণ্ডের পর আতঙ্কে রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

রাঙ্গামাটির পুলিশ সুপার আলমগীর কবির জানান, খাগড়াছড়ি থেকে একটি জিপে কোরে শক্তিমান চাকমার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নেয়ার জন্য, নানিয়ারচরে যাচ্ছিলেন আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি-এমএন লারমার নেতাকর্মীরা। গাড়িটি রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়ি সীমান্তবর্তী টেংরাছড়ি এলাকায় পৌঁছালে, তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে দুর্বৃত্তরা। এতে ঘটনাস্থলেই ৫ জন মারা যান, আহত হন অন্তত ১০ জন। পরে তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম ও খাগড়াছড়ি হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার পর সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে টহল দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় নানিয়ারচর বাজার থেকে মোটরসাইকেলে উপজেলা পরিষদের সামনে এসে নামতেই শক্তিমান চাকমাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ সময় তার সহকারী নানিয়ারচর উপজেলা পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) সাংগঠনিক সম্পাদক রুপম চাকমাও (৩৫) গুলিতে আহত হন। তাকে রাঙ্গামাটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আর আজ শুক্রবার শক্তিমান চাকমার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হয়। সেই অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা গাড়ি রোধ করে ব্রাশফায়ার করে।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password