বাঘাইছড়িতে অভিযোগহীন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্র্ণ ভোট গ্রহণ মেয়র আওয়ামী লীগের জাফর নির্বাচিত

  প্রিন্ট
(Last Updated On: ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৭)

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামীলীগ প্রার্থী জাফর আলী খান। শনিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন ফলাফল ঘোষণা করেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ৩৭৯৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান আজিজ পেয়েছেন ২২২৭ ভোট। বিএনপির ধানের শীষের প্রার্থী ওমর আলী পেয়েছেন ১৭৯৮ ভোট। বাঘাইছড়ি পৌরসভা হওয়ার পর এটি দ্বিতীয় নির্বাচন। ২০০৪ সালে পৌরসভা ঘোষণা করা হলেও প্রথমে প্রশাসক নিয়োগ করা হয়। প্রায় সাত বছর পর ২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচন হয়। পৌরসভাটিতে মোট ভোটার ১০ হাজার ১৭৭ জন। মোট নয়টি কেন্দ্রের ৩৩টি বুথে ভোটগ্রহণ হয়। নবগঠিত নির্বাচন কমিশনের এটি প্রথম নির্বাচন।

এর আগে সকাল থেকে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে লাইনে দাঁড়িয়ে সুশৃঙ্খলভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে দেখা গেছে। সকাল ৮টা থেকে পৌরসভার ৯টি কেন্দ্রে একযোগে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় ভোট দেন ভোটাররা। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন সাধারণ ভোটাররা। কিশলয় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের ভোটার রবিন জানান, আমি খুবই শান্তিতে এসে আমার ভোট দিয়েছি, কোন সমস্যা হয়নি। কেউ ভোট দানে বাধা প্রদানও করেনি। আরেকজন ভোটার কিনারাম চাকমা জানান, ভোট সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষজনক বলে জানান প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও। শনিবার উপজেলার নির্বাচনী এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাফর আলী জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী বলে জানান। বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী ওমর আলী জানান, এবারের নির্বাচন খুবুই সুন্দর হয়েছে।

নির্বাচনে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিল। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচন নিয়ে কোন প্রার্থী অভিযোগ করেননি বলে নির্বাচনী অফিস সুত্রে জানা গেছে।

অপরদিকে, রাঙামাটি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো: নাজিম উদ্দিন জানিয়েছেন, সকাল থেকে নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনের পরিস্থিতি খুবুই ভাল ছিলো। কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। কেন্দ্রের বাইরে বিজিবি পুলিশ র‌্যাব প্রতিটি ভোটকেন্দ্রের বাইরে টহলে ছিল।

বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচন সারাদেশের জন্য একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আগামীতে বাংলাদেশের সব নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও নিরপে হবে এমন প্রত্যাশা সাধারণ মানুষের। বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে ৯টি ভোট কেন্দ্রে মোট ভোটার ১০ হাজার ১৭৭জন। এতে মেয়র পদে ৩ জন, সাধারন কাউন্সিলার পদে ২৫জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৬জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনে মেয়র পদে ৩ প্রার্থী আওয়ামীলীগের মোঃ জাফর আলী খান, (নৌকা) বিএনপির মোঃ ওমর আলী (ধানের শীষ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (মোবাইল)হিসাবে আজিজুর রহমান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।

এদিকে নির্বাচনের বিভিন্ন কেন্দ্রগুলোতে সকাল থেকেই বিপুল সংখ্যক ভোটারের উপস্থিতি ও ভোটারের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। ভোটারের উপস্থিতিতে সন্তুষ্ট প্রার্থীরা। বেশিরভাগ ভোটার জানিয়েছেন তারা সুষ্ঠুভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পেরেছেন। ভোট প্রদানে তাদের কোন সমস্যা সৃষ্টি হয়নি।

রাঙামাটি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমির খসরু বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রাঙামাটি জেলা পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান জানান, একটি সুষ্ঠু নিরপেক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশনের সার্বিক নির্দেশনায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন করনীয় সব রকমের দায়িত্ব পালন করেছে।

উল্লেখ্য, দেশের সর্ব বৃহত উপজেলা রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে ২০০৪ সালে গঠন করা হয় পৌরসভা। ২০১২ সালের ৮ জানুয়ারি বাঘাইছড়ি পৌরসভার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। শনিবার বাঘাইছড়ি পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। এটি নব গঠিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে প্রথম নির্বাচন। তাই এ নির্বাচনের দিকে সারা দেশের মানুষের দৃষ্টি।

০ Comments

Leave a Comment

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password