শনিবার ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং, ১০ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

চট্টগ্রামে ইয়ং ইন্টারন্যাশনালে ২৭ শত শ্রমিকের বকেয়া বেতন-বোনাস চাইতেই  লাটিচার্জ আহত-২

 

সিইপিজেডস্থ ইয়ং ইন্টারন্যাশনালে প্রায় ২৭শত শ্রমিকের বেতন বোনাস না পেয়ে অনেকটাই মানবেতর জীবণ –যাপন করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে । দীর্ঘ ১০মাস যাবত বকেয়া বেতন না পেয়ে আজ রোববার ১৮জুন দুপুরে শ্রমিকরা পূর্বের কথা অনুযায়ী বেপজা অফিসে গেলে উধ্বর্তন  কর্তার  নির্দেশে নিরাপত্তা  প্রহরীগণ ও গেইটে রক্ষিরা লাটিচার্জ করে দুই শ্রমিক কে আহত করেছেন বলে অভিযোগ করেন অন্যান্যরা শ্রমিকরা।

বিগত জানুয়ারী মাসে সিইপিজেডস্থ  কোরিয়া মালিকাধীন ইয়ং ইন্টারন্যাশনাল লিঃ (তাবু) ফ্যাক্টুরীটি লে-অফ করলে ঘোষনা অনুয়াযী শ্রমিকদের সকল পাওনাদি ঐ মাসেন শেষ দিকে পরিশোধ করার কথা থাকলে দীর্ঘ ১০মাসেও তা পরিশোধ না করে প্রায় ২৭শত শ্রমিক কে মানবেতর জীবণ –যাপনের দিকে টেলে দিচ্ছেন। মালিক পক্ষের জি.এম ইউসুফ এবং ডাইরেক্টর পার্ক বেপজার সাথে বৈঠক করে চুড়ান্ত ভাবে শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা দিতে সম্মত হলেও কোন এক আমলা তান্ত্রিক জটিলতায় তা দিতে ব্যর্থ বেপজা ও ইয়ং ইন্টারন্যাশনাল লিঃ কর্তৃপক্ষ।

ফলে আজ ঐ শ্রমিকের ৭/৮শত নারী-পুরুষ মিলে বেপজার জি.এম খোরশেদ আলম কে পাওনা টাকার অগ্রগতি জানতে ভিতরে যেতে চাইলে বেপজার কর্তা আশিষের  নির্দেশে আগত শ্রমিকদের উপর নির্দয় লাটিচার্জ করে চত্র ভঙ্গ করার চেষ্টা করেন। এতে দুই শ্রমিক জাহানরার আক্তার(২৮),সোলাইমান (৪২) এর মাথা পেটে রক্ত জরতে দেখা গেছে । পরে তারা সকলেই জড়ো হয়ে নিকটস্থ ইপিজেড থানা একটি লিখিত স্বারকলিপি দেন।

এসময় ওসি আবুর বাশার বলেন,খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং শ্রমিকদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে এক পাশে এনে তাদের বিষয়টি সুরহা করতে উচ্চ পর্যায়ে কথা বলার চেষ্টা চলছে বলে জানান্  । তিনি আরো জানান,বেপজার একটি টিম প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে এই বিষয়ে জানানোর জন্যই ঢাকায় গেছে্। ফ্যাক্টুরীর সূত্রে জানান, মিলটি বিক্রি না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকদের পাওনা দিতে পারছেন বলে আপাদত নিশ্চিত।

তবে থানার ওসি বাশার বলছেন, ইয়ং ইন্টারন্যাশনাল লিঃ এর’ টাকা জোগাড় হলে আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করতে পারছেন না ।এই সময়ে এতো শ্রমিকের টাকা না দিলে তারা কোথায় যাবেন সেটি ও দেখার বিষয…?বিষয়টি দ্রুত  প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের মাধ্যমে সুরহা না হলে চরম আকার ধারণ হতে পারে বলে  মন্তব্য করেন আগত শ্রমিকরা …!

 

Categories: অপরাধ দূর্নীতি

Leave A Reply